আত্মোন্নয়ন

এখানেই? নাকি সামনে?

প্রথম সাইকেল চালাতে শিখছি। কয়েক পাড়াতুতো ভাই শেখাচ্ছে। সিটের উপর বসে প্যাডেল ঘুরাতে হবে। সিট আমার মাপেই। ওঠার পর প্যাডেলও পায়ের নাগালে পাচ্ছি। এখন কাজ হলো প্যাডেলে চাপ দেয়া। কিন্তু যেই প্যাডেলে চাপ দিতে যাই ওমনি পড়ে যাই। এভাবে বেশ কয়েকবার। তারপর সবাই আমাকে ধরল। বলল, সামনে তাকাও – যখন প্যাডেলে চাপ দিচ্ছ তখন প্যাডেলের দিকে তাকিও না। তারপর অনেক কষ্টে দৃষ্টি সামনের দিকে দিতে শিখলাম। বারবার পায়ের দিকে তাকানো বন্ধ করার পরই দিব্যি সাইকেল চালানো শিখে গেলাম।
Continue reading

Standard
আত্মোন্নয়ন

আগামীকাল? কখন?

প্রতিদিন কত কাজই তো করেন। তারপরও কাজ শেষ হয় না, একটা শেষ না করতেই আরেকটা এসে হাজির হয়। এই সমস্যাটা সবার। আর তাই অনেকেই ভাবি থাক এই কাজটা আগামীকাল করব। এটি ভাবা খারাপ না। আসলে অনেক কাজ আছে যেগুলি আজকে না করে আগামীকাল করাই ভাল; আবার কিছু কাজ আছে যেগুলি কোনোদিন না করলেই ভাল! তবে যখন কোনো কাজ আগামীকাল করবেন বলে ঠিক করেন তখন সেই কাজটি কি সত্যিই আগামীকাল করা হয়ে ওঠে? বেশিরভাগের ক্ষেত্রেই সেটি হয় না; আমার নিজেরও না। কারণ আমরা আগামীকাল ঠিক কোন সময়ে সেই কাজটি করব তা নির্ধারণ করি না।

আমাদের পরিকল্পনা যদি পরিষ্কার হয় তাহলে সেটি করার টান থাকে; সেটি সময়মতো করা হয়ে ওঠে। কিন্তু যদি ‘আগামীকাল’ এর মতো অনির্দিষ্ট সময় নির্ধারণ করে দেয়া হয় তাহলে সেটির প্রতি আমাদের দায়বদ্ধতা কমে যায়। তাই যখনই আগামীকাল কিছু করতে চাইব তখনই উচিত হবে সেই কাজটির জন্য একটি সময় নির্ধারণ করে দেয়া। আপনার ক্যালেন্ডারে গিয়ে সেটির জন্য একটি সময় নির্ধারণ করে দিন; পারলে কোথায় করবেন সেটিও ঠিক করে দিন। গবেষণায় দেখা গেছে কোনো কাজের জন্য সময় ও স্থান নির্ধারণ করা হয়ে গেলে সেটি করা সহজ হয়ে ওঠে। Continue reading

Standard
শ্রী চিন্ময়
কবিতা

স্বপ্ন / শ্রী চিন্ময়

১.
স্বপ্নসব বাঁচিয়ে রাখে এই পৃথিবী।

২.
আজকের স্বপ্নদ্রষ্টা আগামীদিনের পথসন্ধানী।

৩.

প্রতিটি স্বপ্নই সামনে এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা।

৪.

প্রতিটি স্বপ্নই নিজেকে আবিষ্কারের সুযোগ।

৫.

স্বপ্ন আমাদেরকে মেঘের মধ্যেই পাল তুলে নাও বাইতে প্রেরণা যোগায়।

৬.

স্বপ্ন থেকে জন্ম নেয় বাস্তবতা।

৭.

প্রতি মুহূর্তে স্রষ্টা স্বপ্ন দেখছেন তাঁর সৃষ্টির মাধ্যমে।

৮.

প্রথমে আমরা স্বপ্ন দেখি, তারপর শীঘ্রই, বাস্তবতা নেমে আসে।

৯.

আমরা প্রার্থনা করলে ঈশ্বর আমাদের এক নূতন স্বপ্ন দিয়ে আশীর্বাদ করেন।

১০.

স্বপ্ন এক বীজ; এর থেকে বেড়ে ওঠে বাস্তবতা।

১১.

মানবজাতির যা দরকার: দিনের বেলায় ইতিবাচক চিন্তা, রাতের বেলায় ইতিবাচক স্বপ্ন।

১২.

মন যখন পরিষ্কার, স্বপ্ন তখন উজ্জ্বল।

১৩.

হৃদয় যখন বিশুদ্ধ, স্বপ্ন তখন সুন্দর।

১৪.

জীবন যখন স্বত-প্রণোদিত, স্বপ্ন তখন ফলদায়ক।

১৫.

কোনো স্বপ্নই চিরকাল অপূর্ণ থাকে না।

১৬.

ধৈর্য্য ও অধ্যাবসায় স্বপ্ন-পূরণকারী।

১৭.

প্রতিটি স্বপ্ন আমাদের হৃদয়ে ঈশ্বরের-সৌরভ।

১৮.

আজকের আত্মার-স্বপ্নদ্রষ্টা আগামীদিনের জীবন-গঠনকারী।

১৯.

মনোহর স্বপ্ন এক উর্দ্ধমুখী শিখা।

২০.

একটি স্বপ্ন সজীবতা। একটি স্বপ্ন নবীনতা। একটি স্বপ্ন পরিপূর্ণতা।

২১.

খারাপ স্বপ্নের জন্য ভয় পেও না। তাকে আক্রমণ করো, হাল ছেড়ো না।

২২.

নিরুৎসাহক স্বপ্নকে পরিণত করা যেতে পারে এক আলোকিত বাস্তবতায়।

২৩.

ফুলের স্বপ্ন দেখো, তুমি পরিণত হবে ফুলের সৌন্দর্যে।

২৪.

নৌকার স্বপ্ন দেখো, তুমি পরিণত হবে ভ্রমণের উদ্যমে।

২৫.

পর্বতের স্বপ্ন দেখো, নৈশব্দ হবে তোমার নাম।

২৬.

নদীর স্বপ্ন দেখো, তোমার জীবনের বৈভব গড়াবে আত্মার অমরতায়।

২৭.

আকাশের স্বপ্ন দেখো, তুমি হবে অসীমের সন্তান।

২৮.

সূর্যের স্বপ্ন দেখো, তুমি হবে আগুনের মালিক এবং দাতা।

২৯.

স্বাপ্নিক এক প্রেরণা-আরোহক। স্বাপ্নিক এক আকাঙ্ক্ষার-ধাবক।

৩০.

স্বাপ্নিক এক মনোযোগের নোঙর। স্বাপ্নিক  এক ধ্যানের- ডুবুরি। স্বাপ্নিক এক নীরিক্ষার-বন্দর।

৩১.

স্বপ্নদ্রষ্টা হলো অনন্তের গান এবং অসীমের নৃত্য।

৩২.

স্বাপ্নিক হলো হৃদয়ের সৌন্দর্য ও আত্মার উল্লাসের মধ্যে এক সোনালি সেতুবন্ধন।

৩৩.

লক্ষ্যের দিকে ধাবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে স্বপ্ন।

৩৪.

স্বপ্নের মূল যত গভীর, বাস্তবতার সৈকত ততই নিকটে।

৩৫.

গতকালের স্বপ্ন ছিল দেখার। আজকের স্বপ্ন হলো হওয়ার।

৩৬.

এক বর্ণিল স্বপ্ন হলো ঈশ্বরের সঞ্চিত হাসি।

৩৭.

এক বর্ণিল স্বপ্ন হলো সোনালি সকালের পূর্বাভাস।

৩৮.

এক বর্ণিল স্বপ্ন লক্ষ্যকে নিয়ে আসতে নিকটের চেয়েও নিকটে।

৩৯.

স্বপ্ন কোনো মানসিক অলীকদর্শন নয়। স্বপ্ন হলো আধ্যাত্মিক রোশনাই।

৪০.

প্রতিটি স্বপ্নই অঙ্কুরোদগমিত নূতন সৃষ্টি।

৪১.

প্রতিটি স্বপ্নই ঈশ্বরের হাসিমুখের হাসিমাখা বাস্তবায়ন।

৪২.

আমাদের মন যখন প্রশান্ত থাকে, ঈশ্বর তখন গর্বের সাথে আশীর্বাদ করেন স্বর্গ-গামী স্বপ্নের মাধ্যমে।

৪৩.

আমাদের মন নীরব থাকলে, পরমা দেখায় তাঁর চোখের সৌন্দর্য আর তাঁর হৃদয়ের অমরত্ব।

৪৪.

স্বপ্ন একটি মাঠ যেখানে ফোটে বাস্তবতা-ফুল।

৪৫.

স্বপ্ন হলো মনের আলোকায়ন আর জীবনের পরিপূর্ণায়ন।

৪৬.

স্বপ্ন এক উর্ধগামী উড্ডয়ন। বাস্তবতা হলো সামনে যাওয়ার বিজয়-যাত্রা।

৪৭.

হৃদয়ের স্বপ্নের পেছনে ছোটো। তারাই তোমাকে নিয়ে যাবে উপলব্ধির-সূর্যোদয়ে।

৪৮.

প্রকৃত স্বপ্ন ব্যর্থ হয় না; এটি বইতে বইতে ভিড়ে গিয়ে সোনালি সৈকতে।

৪৯.

শিশু হলো মায়ের স্বপ্ন-পূরক-জীবন।

৫০.

যখন আপনি স্বপ্ন দেখেন এক নক্ষত্রের, আপনার মনের অন্ধকার আত্মসমর্পণ করে হৃদয়ের আলোর কাছে।

৫১.

যখন স্বপ্ন দেখেন, তখন আপনার বিশ্বাসকে সুদৃঢ় করেন।

৫২.

যখন স্বপ্ন দেখো চাঁদের, তোমার মন ভরে যায় কোমলতায়।

৫৩.

যখন স্বপ্ন দেখো চাঁদের, তোমার জীবন হয়ে ওঠে নূতনত্ব।

৫৪

যখন স্বপ্ন দেখো চাঁদের , তোমার হৃদয় হয় পরিপূর্ণ।

৫৫.

এক সুন্দর স্বপ্ন জয় করে মনের সন্দেহ।

৫৬.

এক শক্তিশালী স্বপ্ন বদলিয়ে  দিতে পারে আমাদের জীবন অকল্পনীয়ভাবে।

৫৭.

স্বপ্ন আনে আশার-সুর্যোদয় আমাদের হৃদয়ে।

৫৮.
যখন আমাদের থাকে এক আত্মিক  স্বপ্ন, আমরা  আমাদের দেবত্বকে পুষি।

৫৯.

স্বপ্ন এক ডানা মেলা পাখি যা উড়ছে হাস্যোজ্জ্বল আকাশে।

৬০.

এক মিষ্টি স্বপ্ন স্বর্গের উৎসাহ-ছোঁয়া।

৬১.

মধুর স্বপ্নের মধ্যেই থাকে পৃথিবীর শান্তি।

৬২.
ধরিত্রী মা বিনিদ্রভাবে আশার-স্বপ্নের ডানায় ভর করে থাকেন।

৬৩.

এক মধুর স্বপ্নের সৌন্দর্য ও সৌরভ পৃথিবীর প্রতিটি মানুষকে ঘুম থেকে জাগাক।

 

মূল ইংরেজি থেকে সুহৃদ সরকার কর্তৃক অনূদিত

Standard
শ্রী চিন্ময়
কবিতা

সাতাশ হাজার আশার ফুল / শ্রী চিন্ময়

শ্রী চিন্ময় ১৯৮৩ সালে রচনা শুরু করেন Twenty-Seven Thousand Aspiration Plants  শিরোনামের বাণীর সংকলন যা শেষ হয় ১৯৯৮ সালে। সেই সংকলনের কিছু বাণীর অনুবাদ এখানে তুলে ধরা হলো।

১.

প্রতিটি মানুষই একটি জীবন পেয়েছে
আছে সেই জীবনের বিশেষ উদ্দেশ্য
এই গোপন-কথা আবিষ্কার করতে হবে
নিজেকেই।

২.

মানুষের জন্য
গুরুত্বপূর্ণ হলো
প্রতিদিন পরম সত্যের দিকে
আকৃষ্ট যাওয়া

৩.
কেউই খুব বেশি আন্দাজ করতে পারে না
সৌন্দর্য
ক্ষমতা
এবং আনন্দ সম্পর্কে,
নিজেকে জয়ের

৪.

যদি আমরা আমাদের প্রার্থনা ও ধ্যানের
গভীরে অবগাহন করতে পারি
তাহলে দেখতে পাব পরিষ্কারভাবে
শান্তি আসছে আমাদের কাছে
চারদিক হতে।
৫.

আমরা এক চরম বোকামি করে থাকি
বোকামিটা হলো
আমরা ঈশ্বরকে খুঁজি বাইরে,
অন্তরে না খুঁজে

৬.

যদি নিজেকে অজ্ঞতার জাল থেকে
মুক্ত করতে চান
তাহলে কখনই ধ্যান করতে
দ্বিধা করবেন না, কখনই না

৭.

যদি আপনি মনের মধ্যে বাস করতে থাকেন
তাহলে সমস্যা চিরদিনই থাকবে,
কারণ মনের মধ্যেই সমস্যার শুরু হয়।

৮.

প্রত্যেক সত্যানুসন্ধানীকে উপলব্ধি করতে হবে যে
তার জন্ম এক মুসাফির হওয়ার জন্য
এক পরম লক্ষ্যের দিকে যাত্রা করার জন্য

৯.

আমরা কেবল মূল্য দিই না তাই নয়
আমরা কোনো মূল্যই দিতে
চাই না
যদি আমাদের কাঙ্ক্ষিত কিছু
পেয়ে যাই অতিসহজে

১০.

ছোটখাটো জিনিস,
বড় বড় জিনিসের চেয়ে
আমাদের পরিপূর্ণতায়
বেশি সাহায্য করে থাকে

১১.

আমাদের বর্তমান বিশ্ব-বাস্তবতা যদিও
মর্মঘাতী ও আশা ভঙ্গকারী
তবু আমি বিশ্বাস করি
বিশ্বকে রূপান্তরে আমাদের আশা
একদিন পূর্ণ হবে।

১২.

এমন এক দিন আসবে
যেদিন আমাদের এই পৃথিবী
সকল ভুল বোঝাবুঝি,
সীমাবদ্ধতা এবং দূর্বলতা থেকে মুক্ত হবে।
এটি হয়ে উঠবে সুখী, আলোকোজ্জ্বল
এবং পরিপূর্ণ একাত্ম পরিবার

১৩.
আমার গভীর ধ্যানের সময়
মনের সকল বিভেদ যায় দূর হয়ে
নদী যেমন হারায়
সব বিভেদ বিশাল সাগরে

১৪.

আশার পর্বতের গোড়াতে না পৌঁছেই
আমরা সেই পর্বতের
চূড়ায় উঠতে চাই।

১৫.

আমাকে অবশ্যই উপলব্ধি করতে হবে যে
আমার ঈশ্বরের সন্তুষ্টি কেবল এক প্রার্থনা দূরে
অতএব, আমাকে বসতে দাও
আমার প্রার্থনায়
ভালবেসে এবং আত্মবিশ্বাসে

১৬.

নিজেকে দেখে হাসো
খোলাখুলি
যদি নিজেকে বদলাতে চাও
একান্ত গোপনে

১৭.

মন,
যদি তাকিয়েও থাকে,
কিছুই দেখে না।
হৃদয়,
না তাকিয়েও,
দেখতে পায় সবই।

১৮.
পরিপূর্ণ বাধার মধ্যেও
বর্তমানের ধৈর্য্য হলো
একমাত্র পথ
জীবনে সাফল্যলাভের জন্য

১৯.
প্রতিটি আত্মার আছে নিজস্ব পথ
যার মাধ্যমে ছড়ায় স্রষ্টার আলো
বিশ্বের এই দৈর্ঘ্য ও প্রস্থে

২০.

আমার জীবনে আছে কেবল
দুটি পছন্দ:
আমি হয় সামনে তাকাব
আমার গন্তব্যের দিকে,
কিংবা আমি পেছনে তাকাব
আদিম জঙ্গলে

২১.

পরিত্যাগ করো প্রাচীন পথ
যা তোমাকে নিয়ে যেতে চায় ঈশ্বরের কাছে
আত্ম-নিপীড়নের মাধ্যমে।
নূতন পথ বেছে নাও জীবনকে গ্রহণের
এবং মানুষের মাঝে ঈশ্বর-সেবার
সন্তুষ্ট করতে ঈশ্বরকে
এবং তোমার মধ্যকার প্রকৃত তোমাকে

২২.

মনের পুরনো দ্বন্দ্বসব
জয় করা যায়
কেবল হৃদয়ের
নূতন সমাধানে

২৩.

এক বড় শূন্য-মন
দিতে পারে
বিশাল বীরের-হৃদয়

২৪.
মানব মন আসলে কি
যদি না সেটি সচেতন ও অবিরল
সন্ধান করে স্বস্তির পথ?

২৫.

হায়, বেশিরভাগ মানুষই
বাস করে
অপরিপূর্ণ ব্যক্তিত্বের বিশ্বে

২৬.

প্রেমের ক্ষমতা
অত্যন্ত সুন্দর এবং ফলদায়ক
ক্ষমতার প্রেম
অত্যন্ত বিপজ্জনক এবং সংক্রামক

২৭.

মন পারে না, কিন্তু হৃদয়
পার্থক্য বের করতে পারে
তোমার বাইরের জগৎ কী চায়
আর অন্তর্জগতের কী দরকার

২৮.

পুরোপুরি সন্তুষ্টি
আমাদের হবে
যদি আমরা
হৃদয় দ্বারা চালিত হই

২৯.

আত্ম-দান
আমাদের সুখী-জীবনের
পবিত্র গোপনীয়তা

৩০.

যদিও
আধ্যাত্মিকতা নিদ্রাহীনভাবে চায়
আলোকায়ন
তবু করতে হবে না বর্জন
শিশু-হৃদয়ের আহ্লাদ
যখন যাচ্ছ এই গন্তব্যে

৩১.

যেহেতু কিছুই
অজেয় নয়,
আমাদের নিদ্রাহীন চেষ্টা
সঠিক কাজ
এবং সঠিক মানুষ হতে।

৩২.

আমাদের নিজেদের মনোজগতের অভিজ্ঞতা
অন্যদের কাছ থেকে চেপে বসা
বিজ্ঞতার চেয়ে অনেক ভালো।

৩৩.

দায়িত্ব গ্রহণ
কখনোই বোঝা গ্রহণ নয়
বরং এটি সুযোগকে
কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেয়া

৩৪.

আমার নিজের মতে,
ঈশ্বর আমাকে নিয়ে ত্যক্ত-বিরক্ত,
ঈশ্বরের মতে,
আমি কেবল প্রস্তুতি নিচ্ছি মাত্র

৩৫.

প্রকৃত আলোকায়নের চিহ্ন কী?
প্রকৃত আলোকায়নের চিহ্ন হলো
বিরামহীন ও নিদ্রাহীনভাবে
সন্তুষ্ট হওয়া

৩৬.

মিষ্টি-বাঁশি হও
যখন তুমি জগতের সাথে মিশছ।
বজ্রপাত হও
যখন তুমি নিজেকে শাসছ।

৩৭.

মনকে করতে দিও না চিন্তা আজেবাজে
কারণ এটি পুরোটাই ব্যর্থ হবে।
জিজ্ঞেস করো তোমার হৃদয়কে
আলোকিত করুক চিন্তার জগৎকে
তাহলেই বদলে যাবে
চেহারা ও ভাগ্য
প্রতিটি চিন্তার

 

৩৮.

উৎকর্ষ আসে
নিষ্ঠার সাথে
নিয়মিত অভ্যাসে
৩৯.

যে মুহূর্তে আমি বলি ও অনুভব করি
যে আমি এক শাশ্বত শিশু
আমি মালিক হয়ে যাই
অসীম আনন্দের

৪০.

এমন কোনো মানব-মন নেই
যা কখনো না কখনো
তার মালিককে প্যাড়া দেয়নি

৪১.

বছরের পর বছর ধরে
আমার অনেক বস ছিল
বলাবাহুল্য, এদের মধ্যে
সবচেয়ে খারাপ বস হলো
আমার মন

৪২.

মনস্থির করুন!
আপনি কী চান –
অহমের প্রভুত্ব নাকি দাসত্ব?
সঠিকটা বেছে নিন!

৪৩.

বাইরের জীবনের দু:খ
অন্তর্জীবনের নিশ্চয়তাকে
ছুঁতে পারে না
৪৪.

হায় প্রতিটি মানুষই
নিজেকে সত্যসন্ধানী
বলে দাবি করে
প্রথমে সত্যসন্ধানী না হয়েই
৪৫.

ভুল-কাজ করা জীবন
সবসময় মেনে চলে
ভুল-চিন্তাকারী মনকে

৪৬.

ঈশ্বর লুকিয়ে থাকেন
এটি যদি সত্য হয়
তাহলে এটিও সমান সত্য যে
আমরা খুঁজি না তাকে

৪৭.

জীবনের যেকোনো ক্ষেত্রে
সফল হতে চাইলে
আপনার মনোযোগ
হতে হবে খুরের মতো তীক্ষ্ণ

৪৮.

শৈশবের ভুলে যাওয়া
স্বপ্নগুলোতে ফিরে যাও
তুমি তোমার জীবনের বাস্তবতা
পূরণে দ্রুততার সাথে এগিয়ে যাবে

 

সুহৃদ সরকার কর্তৃক মূল ইংরেজি থেকে অনুবাদ 

Standard
Maya Angelou
কবিতা

একাকী / মায়া অ্যাঞ্জেলো

শুয়ে শুয়ে, চিন্তা করেছি
কাল রাতে
কীভাবে পাবো আত্মার আবাস
যেখানে জল নয় তৃষ্ঞার্ত
আর রুটি নয় পাথরের মতো শক্ত
পেলাম খুঁজে একটি উপায়
আর মনে করি না আমি ভুল সে ব্যাপারে
যে কেউ না,
কেউই পারে না
কেউই পারে না করতে তা একাকী

একাকী, কেবল একাকী
কেউ না, কেউই পারে না
কেউ পারে না করতে তা কেবল একাকী

অনেক কোটিপতি আছে
অনেক টাকাই তারা করতে পারে না খরচ
তাদের স্ত্রীরা ছুটে চলে ভুতের মতো এদিকওদিক
তাদের সন্তানরা গান গায় বিষাদের
চিকিৎসক রয়েছে তাদের সত্যিই ব্যয়বহুল
করতে ভালো তাদের প্রস্তর হৃদয়
তবু কেউ না
না, কেউ না
কেউ তা করতে পারে না একাকী
একা, কেবল একাকী
কেউ না, না কেউ না
কেউই পারে না তা করতে একাকী

এখন যদি শোনো মন  দিয়ে
বলতে পারি যা জানি আমি নিজে
ঝড়ের মেঘ জমছে আকাশে
বাতাস বইবে এখুনি
ভুগছে চরমভাবে মনুষ্যজাতি
আর আমি শুনতে পাচ্ছি সেই কাতরানি
কারণ কেউ না
কেউই পারে না
কেউ পারে না করতে তা একাকী

একাকী, কেবল একেলা
কেউ না, কেউই পারে না
কেউ পারে না তা করতে একাকী

১৪.০৮.২০১৬

Standard
Maya Angelou
কবিতা

তারপরও জেগে উঠি / মায়া অ্যাঞ্জেলো

তোমরা আমাকে নিক্ষেপ করতে পারো ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে
তিক্ত কথা আর বানোয়াট মিথ্যা দিয়ে
তোমরা আমাকে চিত্রিত করতেই পারো কদর্যরূপে
কিন্তু, ধূলিকণার মতোই, আমি আবার উঠব জেগে

আমার উচ্ছলতাই কি তোমাদের বিব্রত করে?
কেন তোমরা হও বিষাদে বিলীন?
কারণ আমি এমনভাবে হাঁটি যাতে মনে হয়
আমার ঘরে পেয়েছি তেলের খনি অবিরত

চাঁদ আর সূর্যের মতোই
জোয়ারের নিশ্চয়তার মতোই
আশার উত্থানের মতোই
পুনর্বার উঠব আমি জেগে

তোমরা কি আমাকে দেখতে চাও হতবিহ্বল?
নামানো মাথায় আর নামানো চোখে?
গড়ানো অশ্রুকণার মতো ভাঙা কাঁধে
আত্মার কান্নায় ক্রমশ দূর্বল হয়ে

আমার ঔদ্ধত্য কি জ্বালায় তোমাদের?
পারোনা মানতে তা কিছুতেই
কারণ আমি হাসতে থাকি, যেন
সোনার মস্ত খনি রয়েছে এই আমার উঠোনেই

তোমরা আমাকে বিদ্ধ করতে পারো তোমাদের শব্দবাণে,
তোমরা আমাকে ছিন্ন করতে পারে তোমাদের শ্যেন দৃষ্টিতে,
তোমরা আমাকে হত্যা করতে পারো তোমাদের ঘৃণায়,
তারপরও, বাতাসের মতোই, আমি আবার উঠব জেগে

আমার সৌন্দর্য জ্বালায় তোমাদের?
লাগে কি বেমানান বড় তোমাদের চোখে
নাচি আমি উল্লাসে যেন আমি পেয়েছি
হীরকখন্ড আমার দু’উরুর মাঝে?

ইতিহাসের লজ্জার ভাগাড় থেকে
আমি জেগে উঠি
বেদনার ভর অতীত থেকে
আমি জেগে উঠি
আমি এক কালো মহাসাগর, উদ্দাম ও প্রশস্ত
ফুলে উঠি আমি, ফুঁসে উঠি আমি প্রবল জোয়ারে
ভয় ও সন্ত্রাসের কালো রাত পেছনে ফেলে
আমি জেগে উঠি
এক পরিচ্ছন্ন দিনের আগমনে
আমি জেগে উঠি
নিয়ে আসি দেয়া সব উপহার আমার পূর্বপুরুষের
আমিই স্বপ্ন ও আশা এইসব ক্রীতদাসদের
আমি জেগে উঠি
আমি জেগে উঠি
আমি জেগে উঠি

মায়া অ্যাঞ্জেলোর Still I Rise কবিতার অনুবাদ

১৪.০৮.২০১৬

Standard
কবিতা

আগুন ও বরফ

Flowers & Trees

কেউ বলে পৃথিবী ধ্বংস হবে আগুনে,
কেউ বলে বরফে
আকাঙ্ক্ষার কাছ থেকে যা জেনেছি আমি
তাতে আগুনের পক্ষে আছি।
তবে এটি যদি দ্বিতীয়বার ধ্বংস হয়
তাহলে বলব ঘৃণার কিছুই আজ নয় অজানা
পৃথিবীর ধ্বংসের জন্য মন্দ নয় ঘৃণার বরফ
আগুনের বিকল্প হতেও পারে তা।

[রবার্ট ফ্রস্ট রচিত Fire and Ice কবিতার অনুবাদ]

১০.০৮.২০১৬

Standard